সমকামি নারীদের চেনার উপায় !!

সমকামি নারীদেরকে চেনার উপায় এজন্য লিপিবদ্ধ করা হচ্ছে, যেন তাদের গার্জিয়ানরা তাদেরকে সংশোধন করতে পারেন। তাদের হিতাকাঙ্ক্ষী হয়ে তাদেরকে সঠিক পথ দেখাতে পারেন। এতে উভয়ের জন্য রয়েছে অফুরান্ত কল্যাণ। এ বিষয়ে লিখে তাদেরকে অপদস্থ করা উদ্দেশ্য নয়। হাদীসে আছে, যে ব্যক্তি কারো দোষ গপন করবে, কিয়ামত দিবসে আল্লাহ তাআলা তাঁর দোষ গোপন করবেন।

সমকামি নারীদের কে চেনার উপায় হল- তাদের মেজায থাকবে তিক্ত, সামান্যতেই রেগে যাবে। সব সময় তাদের নাকের উপর রাগের চিহ্ন ফুটে থাকবে, চেহারা থাকবে কুঞ্চিত, চোখের নিচে কালো দাগ, চেহারা ফেকাশে, চেহারার মাঝে খারাবতার চাপ ফুটে উঠবে, চেহারা সব সময় শুকনো শুকনো মনে হবে, চেহারার উজ্জলতা নিস্তেজ এবং চোখদ্বয় কোঠরাগত হবে, চোখের চারপাশে চিন্তা ও টেনশনের ছাপ প্রস্ফুটিত হবে। এসব নারীদের সব সময় মাথা ব্যাথা থাকে, কথার আওয়াজে কোনো ভারত্বভাব থাকবে না। মাথার চুল অতি অল্প বয়সেই ঝরতে থাকবে। অতি অল্প বয়সেই চুল সাদা হতে থাকবে। ক্ষুধা হ্রাস পাবে। আবার যা খাবে, তাও সহজে হজম হবে না। সব সময় দিল ধরফর করতে থাকবে। আবার অনেকের ঋতুস্রাব বন্ধ হয়ে যায়। আবার যদি ঋতুস্রাব আসেও তবু তা পরিমাণে একেবারেই সামান্য। ঋতুস্রাবের রক্ত থাকবে কালো রঙয়ের দিকে ধাবমান এবং তা হবে খুবই দুর্গন্ধ যুক্ত।

পিঠ ও রানেও ব্যাথা অনুভব হবে। জরায়ুর ভিতরে এবং লজ্জাস্থানের বহিরাংশ ফুলে যাবে। জরায়ু থেকে ক্রমাগত রক্ত পরতেই থাকবে। লজ্জাস্থানে জ্বলন রোগ দেখা দিতে পারে।

নিয়মিত আপডেট পেতে লাইক দিয়ে আমাদের সাথে থাকুন