পেটে আলসার হওয়ার লক্ষণ ও প্রতিকার !!

আলসার বা পেটের ভিতরে হওয়া ঘা একটি সাধারণ স্বাস্থ্য সমস্যা। সচেতন হলে এই রোগ অনেকখানি প্রতিরোধ করা সম্ভব।এছাড়া বর্তমানে সফলভাবে এই রোগের চিকিৎসা করা হয়ে থাকে। তবে এটি রোগীর জীবনকে দুর্বিষহ করে তোলে।

পেটের দেওয়ালে হওয়া ঘায়ের সঙ্গে খাবারের মধ্যে থাকা মশলা, তরল ইত্যাদির সংস্পর্শ হলে বা অ্যাসিডিটি হলে পেটে প্রচণ্ড ব্যথা হয়, গ্যাসট্রাইটিসের সমস্যা হয়, পেট জ্বালা করতে থাকে যা সহ্য করা একেক সময় অসম্ভব হয়ে ওঠে।

* আলসারের লক্ষণ সমূহ
-রোগের সবচেয়ে সাধারণ উপসর্গ হলো তীব্র ব্যথা।
-নাভী থেকে শুরু করে বুকের হাড় পর্যন্ত এই ব্যথা অনুভূত হয়।
-ব্যথা কয়েক মিনিট থেকে কয়েক ঘণ্টা পর্যন্ত স্থায়ী হতে পারে।
-পাকস্থলী খালি থাকলে ব্যথা আরো বেশি অনুভূত হয়।
-খাবার খেলে বা এসিডের ওষুধ খাওয়ার ফলে সাময়িকভাবে ব্যথার উপশম হয়। আবার ক্ষুদ্রান্তের আলসার বা ঘাতে খেলেও ব্যথা বাড়ে।
-ব্যথা চলে গিয়ে কিছুদিন বা কয়েক সপ্তাহের জন্য আবার ফিরে আসে।

* অন্যান্য লক্ষণ ও উপসর্গ
-লাল অথবা কালো রঙয়ের রক্ত বমি।
-পায়খানার সাথে গাঢ় রঙয়ের রক্ত যাওয়া অথবা পায়খানার রঙ কালো অথবা আলকাতরার রঙয়ের মতো হওয়া।
-বমি বমি ভাব অথবা বমি হওয়া।
-হঠাৎ করে শরীরের ওজন কমে যাওয়া।
-খাবারে রুচির পরিবর্তন হওয়া।

আলসারের মধ্যে সবচেয়ে চেনা নাম হল ‘গ্যাসট্রিক আলসার’। আল্ট্রাসনোগ্রাফি করে আলসার ধরা পড়ার পর চিকিৎসার মাধ্যমে সারানো যায়। বস্তুত, আলসার সারানোর নানা উপায় রয়েছে। আলসার সেরে যাওয়ার পর ঠিকমতো ডায়েট চার্ট মেনে চলাও সবার অবশ্য কর্তব্য।

* আলসারের প্রতিকার
-মাংস ও পোলট্রি প্রোডাক্ট
-চর্বিহীন মাংস ও পোলট্রি প্রোডাক্টে ফ্য়াট কম থাকে ও পর্যাপ্ত নুন থাকে যা পেটের আলসারে ভালো কাজ করে।
-টক দই কম ফ্যাটের ডেয়ারি প্রোডাক্ট, বিশেষ করে দই আলসার সারাতে অসাধারণ কাজ করে।
-মধু এমন একটি অ্যান্টিসেপটিক যা যে কোনও জ্বালা-পোড়া বা ঘা সারাতে লড়াই করে। মধু খেলে আলসার আর বাড়ে না। বরং ধীরে ধীরে কমবে।
-সব তেল নয়, অলিভ অয়েল ও সূর্যমুখী তেল পেটের আলসারকে দূরে রাখার ভালো কাজ করে।
-বাধাকপিতে থাকে এস-মেথিলমেথিওনাইন যা আলসারের সঙ্গে লড়াই করে তা সারাতে সাহায্য করে।
-বাধাকপির মতো ফুলকপিও পেটের পক্ষে উপকারী। এর মধ্যে রয়েছে অত্যধিক পরিমাণে সালফোরাফেন যা পেটের আলসার সারাতে সাহায্য করে। একইসঙ্গে এর মধ্যে থাকা ভিটামিন সি ও ফাইবার পেটের সুরক্ষা করে।
-ফুলকপির মতো দেখতে আলসার সারাতে মোক্ষম এ সবজিটি বাংলাদেশেও ধীরে ধীরে প্রচলন বাড়ছে। আপনার ডায়েট চার্টেও স্থান দিন এটিকে।
-অঙ্কুরিত ছোলা বা ডাল খেলে পেটের মধ্যে থাকা ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া নির্মুল হয়। পেট ভালো থাকে।
-বেশিমাত্রায় রয়েছে, এমন খাবার পেটের স্বাস্থ্য ভালো রাখে। আলসারেও তা অব্যর্থ কাজ করে।
-নাসপাতিতে রয়েছে অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট যা আলসার প্রতিরোধে সাহায্য করে। এছাড়াও রয়েছে বেশি পরিমাণে ফাইবার হজমে সাহায্য করে।

নিয়মিত আপডেট পেতে লাইক দিয়ে আমাদের সাথে থাকুন