জেনে নিন অতিরিক্ত মদ্যপানের ক্ষতিকর বিষয়গুলো

অ্যালকোহল পানের ক্ষতিকর বিষয়গুলো আগে সেভাবে মানুষের নজরে আসেনি। এবার নিত্যনতুন গবেষণায় বিষয়টি আরও পরিষ্কার হচ্ছে। সম্প্রতি এক গবেষণার আলোকে গবেষকরা জানিয়েছেন অতিরিক্ত মদ্যপান বা অ্যালকোহল গ্রহণে হৃদরোগের ঝুঁকি বাড়ে।

গবেষকরা বলছেন, বেশিমাত্রায় অ্যালকোহল পানে হৃৎপিণ্ডের কার্যক্ষমতা সম্পূর্ণ নষ্ট হতে পারে। এ ছাড়া এতে হৃৎপিণ্ডের যেসব ক্ষতি হতে পারে তার মধ্যে রয়েছে হৃৎপিণ্ডের মাংসপেশির অস্বাভাবিক সংকোচন ও প্রসারণ, অনিয়মিত হৃৎস্পন্দন ও কার্যক্ষমতা সম্পূর্ণ নষ্ট হওয়া।

সম্প্রতি প্রকাশিত এক গবেষণা প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, পরিমিত পরিমাণে মদ্যপান করলেও হৃদরোগের সমস্যা দেখা দিতে পারে৷ যারা স্বল্প পরিমাণে মদ্যপান করেন, তাদের তুলনায় যারা একেবারেই মদ খান না, তাদের হৃদরোগ হওয়ার সম্ভাবনা কমে যায়।

গবেষকরা আরও বলছেন, মদ্যপানের ফলে বেড়ে যায় হৃৎস্পন্দন। রক্তসঞ্চালন অনিয়মিত হয়ে পড়ে। ফলে হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়। এতে আপনার স্মৃতিভ্রংশ হতে পারে। এ ছাড়া ঘন ঘন ঘাম ও ভ্যাসোপ্রেসিন হরমোনের ফলে স্বাভাবিকের থেকে বেশি মূত্রত্যাগ হতে পারে। এ ছাড়া নাসিকা গর্জন অত্যন্ত বেড়ে যেতে পারে। আরেকটি বড় সমস্যা হলো, সব সময় ঘুম ঘুম ভাবে আচ্ছন্ন হয়ে থাকা। যদিও এতে ঘুমাতে পারবেন না।

এ বিষয়ে গবেষণাপত্রটির লেখক ড. গ্রেগরি মার্কাস। তিনি ইউনিভার্সিটি অব ক্যালিফোর্নিয়া স্যান ফ্রান্সিসকোর গবেষক। তিনি বলেন, ‘অতিরিক্ত মদ্যপানের ফলে অ্যাট্রিয়াল ফিব্রিলেশন নামে একটি জটিলতা তৈরি হতে পারে যা থেকে হৃৎপিণ্ড কার্যক্ষমতা হারা। এ ছাড়া এটি হার্ট অ্যাটাকেরও কারণ হতে পারে, যা মধ্যম মানের মদ্যপানেও হতে পারে। ‘

সম্প্রতি গবেষণার ফলাফল বলছে অতিরিক্ত মদ্যপানে আপনার হৃৎস্পন্দন বেড়ে যেতে পারে প্রায় দ্বিগুণ। এ ছাড়া হৃৎস্পন্দন বন্ধ হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা বাড়ে ২.৩ গুণ। গবেষণাটির ফলাফল প্রকাশিত হয়েছে আমেরিকান কলেজ অব কার্ডিওলজি জার্নালে।

নিয়মিত আপডেট পেতে লাইক দিয়ে আমাদের সাথে থাকুন