স্কিপিং বা দড়ি লাফানোর ১৪টি উপকারিতা !!

ছেলেবেলার কথা মনে আছে? আমরা যারা একটু গ্রামে বড় হয়েছি তখন কিন্তু কিছু না বুঝেই শুধুমাত্র খেলার ছলে দড়ি লাফাতাম। তখন এতো আধুনিক স্কিপিং রোপ ছিল না। আজকাল কিন্তু সেই দড়ি লাফানো একটি দারুণ ব্যায়াম হিসেবে পরিচিত। আপনার স্বাস্থ্য ফিট রাখতে, ওজন কমাতে, শরীরের ঘাম ঝরাতে দড়ি লাফের বিকল্প খুব কম। আসুন জেনে নিই, দড়ি লাফানোর ১৪টি উপকারিতা সম্পর্কে।

(১) এটাকে একটি ভালো কার্ডিও ও হাই ইনটেনসিভ ইন্টারভেল ট্রেইনিং বলা হয়।

(২) আপনার দেহের চর্বি ঝরাতে এর জুড়ি নেই।দৌড়ানোর চেয়ে স্কিপিং বেশি ক্যালোরি বার্ন করতে সক্ষম। এক ঘন্টা স্কিপিং-এ ১৩০০ ক্যালোরি খরচ হয়!

(৩) বেশিরভাগ সময় বাইরে দৌড়াতে যেতে হবে চিন্তা করে আলসেমি ঘিরে ধরে। তবে হাতের কাছে দড়ি থাকলে আর ঘরের বাইরে যেতে হবে না । ঘরেই করতে পারবেন। তাই খারাপ আবহাওয়া আপনার ফিটনেস রুটিনে আর বাধা নয়।

(৪) এটা ব্যায়ামের সবচেয়ে সস্তা উপার । একটি রোপ হলেই হল।

(৫) এটা আপনার মাংসপেশিকে টোন করতে সাহায্য করবে।

(৬) এটা আপনার হাত পা একসাথে চালানো ব্যাল্যান্স করবে সাথে শরীরের অন্য অঙ্গ প্রতঙ্গ।তাই সব অ্যাথলেটরাই স্কিপ্পিং চর্চা করেন ।

(৭) শরীরের সামাঞ্জস্য রক্ষায় একটি গুরুত্বপূর্ণ ব্যায়াম।

৮) এতে আপনার ফুল বডি ওয়ার্ক আউট হবে। এটা থাই টান টান করতে খুব কার্যকর। এমন কি হাতের মাংসপেশিও ।

(৯) আপনার হিপের মাংসপেশি টান টান করে।

(১০) গবেষণায় দেখা গেছে যে, স্কিপিং আপনার জয়েন্টে কম চাপ তৈরি করে দৌড়ানোর চেয়ে। তাই দৌড়ানোর চেয়ে স্কিপিং ভালো ব্যায়াম হিসেবে পরিচিত।

(১১) যেহেতু স্কিপিং এর ফলে হার্ট বিট ফার্স্ট হয় তাই এটি আপনাকে আলাদা করে কার্ডিও ভাস্কুলার এক্সারসাইজ করতে হবে না।

(১২) এই এক্সারসাইজ করতে আপনাকে একেবারে পারদর্শী হতে হবে তা নয়। বিগিনার থেকে অ্যাডভান্স সবাই এটি করতে পারবে।

(১৩) নিয়মিত এই এক্সারসাইজ হাড়ের ঘনত্ব বাড়াতে সাহায্য করে।

(১৪) স্কিপ্পিং রোপটি আপনি আপনার হাতের ব্যাগেও রাখতে পারবেন তাই আপনার ব্যায়ামের রুটিন কখনোই মিস হবে না।

স্কিপিং এর জন্য যা আপনিই মনে রাখবেন

একটি ভালোমানের রোপ কিনবেন।
খালি পায়ে স্কিপিং করবেন নাকি জুতা পায়ে? অনেক বলে যে, খালি পায়ে স্কিপিং ভালো। এতে পায়ের অনেক সমস্যাও ভালো হয়। কিন্তু হটাৎ করে আপনি খালি পায়ে স্কিপিং করলে ব্যথা হতে পারে। তাই স্পোর্টস সু পরে স্কিপিং করাই শ্রেয়।
মেয়েদের জন্য বিশেষ করে প্রাপ্ত বয়স্ক মেয়েদের জন্য ভালো মানের স্পোর্টস ব্রা পরে স্কিপিং করা উচিৎ।
প্রথমে ধীরে ধীরে স্কিপিং করবেন এবং আস্তে আস্তে গতি বাড়াবেন ।
সমান জায়গায় স্কিপিং করবেন। উডেন ফ্লোর হলে ভালো হয়।
খোলা জায়গায় স্কিপিং করে আপনি আনন্দ পাবেন বদ্ধ জায়গার চেয়ে।
এটি একটি হাই ইনটেনসিটি ব্যায়াম তাই ওয়ার্ম আপ খুব জরুরী।
স্কিপিং এর প্রকারভেদ

(১) ডাবল জাম্প- সবচেয়ে জনপ্রিয় স্কিপিং স্টাইল যাতে বেশি গতি চর্চা হয় আর ক্যালোরি বার্নও বেশি হয় ।

(২) ক্রস জাম্প- ইনটেনসিভ স্কিপিং স্টাইল তবে মাঝে মাঝে আপনাকে ব্রেক দিতে হবে।

(৩) এক পায়ে লাফানো- এটা অ্যাডভান্স স্কিপিং তাই ডাবল জাম্প বা ক্রস জাম্প চর্চা করে আয়ত্তে এনে তবে এটি করা উচিৎ। এতে বেশি ব্যাল্যান্স দরকার হয়।

টিপস

স্কিপিং করার জন্য প্রথমে ১৫ মিনিট স্কিপিং করবেন প্রতি ১০-১৫ সেকেন্ড ইন্টারভেলে। প্রথমে ৫ মিনিট ওয়ার্মআপ করবেন।

নিয়মিত আপডেট পেতে লাইক দিয়ে আমাদের সাথে থাকুন